vivo y01 price in bangladesh 2024 – ভিভো y01 বাংলাদেশ প্রাইস।

ভিভো y01 কম বাজেটের একটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন। আপনি যদি ১০ হাজার টাকার মধ্যে স্মার্টফোন কিনতে চান তাহলে ভিভো y01 দেখতে পারেন। তবে ফোনটি কেনার আগে আপনার জেনে নেওয়া উচিত বাজেট অনুযায়ী ফোনটি কতটুকু চাহিদা পূরণ করতে পারবে। ভিভো y01 ফোনটির বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে এ নিবন্ধে জানানো হয়েছে।

গ্রাহকদের দিকে খেয়াল রেখেই ভিভো প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন বাজেটের স্মার্টফোন তৈরি করে। আর এই ধারাবাহিকতায় প্রতিষ্ঠানটি কম বাজেটের ফোন ভিভো y01 লাঞ্চ করেছে। চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক এই ফোনটি সম্পর্কে।

১০০০০ টাকার মধ্যে ভিভো মোবাইল

২৪ মার্চ ২০২২ তারিখে ভিভো Y01 ফোনটিকে বাংলাদেশে লাঞ্চ করা হয়েছে। ফোনটিকে পাবেন Sapphire Blue ও Elegant Black এই দুটি কালারে।

ভিভো Y01 ফোনের ডিসপ্লে ও ডিজাইন

আমাদের একটা বিষয় মনে রাখতে হবে ভিভো Y01 একটি কম বাজেটের ফোন। বাজেট অনুযায়ী ফোনটির ডিজাইন বেশ ভালো। ফোনটিতে রয়েছে ৬.৫১ ইঞ্চি IPS LCD মাল্টি টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে। ব্লু লাইটের নির্গমন কমাতে ফোনটির ডিসপ্লেতে রয়েছে ভিভোর নেটিভ আই প্রোটেকশন মোড।

বডি এবং সেন্সর

১৭৮ গ্রাম এই ফোনটির সামনের গ্লাস এবং পিছনে প্লাস্টিক ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার করা হয়েছে।স্যাফায়ার ব্লু ও এলিগ্যান্ট ব্ল্যাক এই দুটি কালারের পাওয়া যাবে। ফোনটিতে রয়েছে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্টের সুবিধা। ফোনটিতে সেন্সর হিসেবে আরও রয়েছে অ্যাক্সিলোমিটার, প্রক্সিমিটি ও কম্পাস।

নেটওয়ার্ক ও পারফরম্যান্স

ডুয়াল সিম সাপোর্টেড এই ফোনটিতে 2G,3G ও 4G নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা যাবে। তাছাড়া GPRS এবং EDGE ব্যবহারের সুবিধাও রয়েছে। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Android 11 (Go edition), Funtouch 11.1 অপারেটিং সিস্টেম। Vivo Y01 ফোনটিতে প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Mediatek MT6765 Helio P35 (12nm) চিপসেট।

আরো পড়ুন ১০০০০ টাকার মধ্যে ভিভো মোবাইল। স্বল্প বাজেটে ভিভো ফোন।

ফোনটিতে একটি অক্টাকোর (4×2.35 GHz Cortex-A53 এবং 4×1.8 GHz Cortex-A53) CPU রয়েছে। তাছাড়া ফোনটিতে আরও থাকছে PowerVR GE8320 GPU যা এন্ট্রি লেভেলের ফোনগুলোতে সাধারণত দেখা যায়। বহুদিন ধরেই কম বাজেটের ফোনগুলোতে এই ধরনের প্রসেসর ব্যবহার করা হচ্ছে। আর Vivo Y01 একই ধারাবাহিকতায় রয়েছে। 2 GB র‍্যাম ও 32 GB স্টোরেজ, শুধু এই একটি ভ্যারিয়েন্টে ফোনটিকে পাওয়া যাবে।

ক্যামেরা

ফোনটিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। অন্যসব এন্ট্রি লেভেলের ফোন গুলোর মতই Vivo Y01 ফোনে এভারেজ ক্যামেরা পারফরম্যান্স পাওয়া যাবে। আপনি যদি ভাল মানের ছবি তুলতে চান এই ফোনটি আপনাকে হতাশ করবে। তবে বাজেট অনুযায়ী ফোনটির ক্যামেরা পারফরম্যান্স ভালোই বলা চলে। ফোনটি দিয়ে সর্বোচ্চ 1080p@30fps ভিডিও রেকর্ডিং এর ব্যবস্থা রয়েছে। এতে LED ফ্ল্যাশ ফিচার রয়েছে সেটা আলাদা করে বলার প্রয়োজন নেই।

ব্যাটারি

ফোনটির ব্যাটারি পারফরম্যান্সের কথা বলতে গেলে এতে 5000 mAh ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনের সাথে ১০ ওয়াট একটি চার্জার পাবেন। ফোনটি সম্পূর্ণ চার্জ হতে কিছুটা সময় লাগলেও এফিসিয়েন্ট প্রসেসর এর জন্য দীর্ঘ সময় ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। এই ব্যাপারটা আমার কাছে প্লাস পয়েন্ট মনে হয়েছে।

Vivo Y01 মোবাইলের দাম

Vivo Y01 মোবাইলের বাংলাদেশ মার্কেটে মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৯৯৯০ টাকা।

এক নজরে Vivo Y01 এর ফুল স্পেসিফিকেশন

  • রিলিজ তারিখঃ‌ ২৪ মার্চ ২০২২
  • মেইন ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • সেলফি ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • অপারেটিং সিস্টেমঃ অ্যান্ড্রয়েড ১১, ফানটাচ ১১.১ ওএস
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক এর হেলিও পি৩৫ (Mediatek MT6765 Helio P35)
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলি এম্পিয়ার 
  • ডিসপ্লেঃ ৬.৫১ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি মাল্টিটাচ
  • র‌্যাম এবং স্টোরেজঃ ২/৩২ জিবি
  • নেটওয়ার্ক এবং সিমঃ ডুয়াল সিম সাপোর্ট করে। ২ জি, ৩ জি ও ৪ জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে।

Vivo Y01 সম্পর্কে আমাদের মতামত

বাজেট অনুযায়ী Vivo Y01 ফোনটিকে খারাপ বলার কোন সুযোগ নেই। মিডিয়াটেক হেলিও P35 মোটামুটি ভালো প্রসেসর। তাই ফোনটিকে কম বাজেটের একটি গেমিং ফোন বলা যায়। ফ্রী ফায়ার এবং এই লেভেলের গেমগুলো ভালভাবে খেলতে পারবেন।

৬.৫১ ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে এই ব্যাপারটা বাজেট অনুযায়ী ফোনটির একটি ভালো দিক।

ফোনটির ২ জিবি র‍্যাম এই বিষয়টা আমার কাছে ভালো লাগে নি। র‍্যাম ৩ জিবি হলে মনে হয় ভালো হতো। এ বাজেটের মধ্যে ৩ জিবি র‍্যামের অনেক ফোন পাবেন।

সবদিক থেকে বিবেচনা করলে Vivo Y01 কে বাজেট অনুযায়ী একটি ভালো ফোন বলা যায় কিন্তু কখনো এই ফোনটিকে বাজেট অনুযায়ী সেরা ফোন বলা ঠিক হবে না। আর এটা একান্ত আমাদের মতামত। Vivo Y01 ফোনটি সম্পর্কে আপনি আপনার মতামত কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

লক্ষণীয় বিষয়- আমরা সাধারণত ইন্টারনেট থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সেই ভিত্তিতে আপনাদের সেটা জানানোর চেষ্টা করি। কোম্পানিগুলো তাদের পণ্যের মূল্য পরিবর্তন করে থাকে এবং যে কোন পণ্য কেনার আগে ভালভাবে যাচাই বাছাই করা উচিত।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *